ঢাকা | |
সংবাদ শিরোনাম :
টাঙ্গাইলে বানভাসিদের ডায়রিয়ার প্রকোপসহ ছড়াচ্ছে পানিবাহিত রোগ কোটা নিয়ে হাইকোর্টের রায়ের বিরুদ্ধে লিভ টু আপিল আজ কলম্বিয়াকে কাঁদিয়ে কোপার সর্বোচ্চ চ্যাম্পিয়ন আর্জেন্টিনা ‘তুমি কে, আমি কে? রাজাকার, রাজাকার' স্লোগান, মধ্যরাতে উত্তপ্ত ঢাবি মধ্যরাতে ক্যাম্পাসে ইবি শিক্ষার্থীদের বিক্ষোভ মধ্যরাতে উত্তাল ঢাবি, কোটা আন্দোলনকারীদের বিক্ষোভ যে কারণে পিছিয়েছে আর্জেন্টিনা-কলম্বিয়া ফাইনাল ট্রাম্পকে হত্যাচেষ্টাকারী স্নাইপারের গাড়ি ও বাড়িতে মিললো ‘বিস্ফোরক’ আরসা সন্ত্রাসীদের সঙ্গে গোলাগুলিতে পুলিশ সদস্য আহত সাতক্ষীরায় যাত্রীবাহী বাসের ধাক্কায় সাইকেল আরোহী নিহত

নামাজের বৈঠকে কখন শাহাদাত আঙুল ওঠাবেন?

বৈঠক বা হাঁটুগেড়ে বসা নামাজের একটি অবিচ্ছেদ্য অংশ। নামাজের প্রতি দুই রাকাত পর বৈঠক করতে হয়। দুই রাকাতবিশিষ্ট
  • আপলোড সময় : ২৭ জুন ২০২৪, সকাল ৯:১২ সময়
  • আপডেট সময় : ২৭ জুন ২০২৪, সকাল ৯:১২ সময়
নামাজের বৈঠকে কখন শাহাদাত আঙুল ওঠাবেন? ছবি : সংগৃহীত
বৈঠক বা হাঁটুগেড়ে বসা নামাজের একটি অবিচ্ছেদ্য অংশ। নামাজের প্রতি দুই রাকাত পর বৈঠক করতে হয়। দুই রাকাতবিশিষ্ট নামাজের শেষে বৈঠক করা ফরজ, চার রাকাতবিশিষ্ট নামাজের প্রথম দুই রাকাতের পর বৈঠক করা ওয়াজিব এবং শেষের বৈঠক ফরজ। নামাজের প্রথম বৈঠকে শুধু তাশাহহুদ পড়া ওয়াজিব, শেষ বৈঠকে তাশাহহুদ পড়া ওয়াজিব, দরুদ ও দোয়ায়ে মাসুরা পড়া সুন্নত।

তাশাহহুদের শেষ অংশে নামাজরত ব্যক্তি যখন কালেমায়ে শাহাদাত পড়ে বা আল্লাহর একত্বের সাক্ষ্য দেয়, তখন তর্জনী বা শাহাদাত আঙুল ওঠানো সুন্নত। ‘আশহাদু আল্লা ইলাহা’ পড়ার সময় বৃদ্ধাঙ্গুলি ও মধ্যমা দিয়ে গোলাকৃতি বানাবে এবং শাহাদাত আঙুল ওঠাবে, কনিষ্ঠা ও অনামিকা ভাজ করে হাতের তালুর সাথে মিলিয়ে রাখবে। ‘ইল্লাল্লাহ’ বলার পর শাহাদত আঙুল নিচু করবে। তবে অন্য আঙুলগুলো নামাজের শেষ পর্যন্ত ওই অবস্থায় অর্থাৎ শাহাদাত আঙুল ওঠানোর সময় যে অবস্থা হয়েছিল সে অবস্থায় রাখবে।

হযরত আমের ইবনে আব্দুল্লাহ ইবনে জুবায়ের তার বাবা থেকে বর্ণনা করেন যে, আল্লাহর রাসুল (সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম) যখন তাশাহুদ পড়ার জন্য বসতেন,তখন ডান হাত ডান উরুর উপর এবং বাঁ হাত বাঁ উরুর ওপর রাখতেন আর শাহাদাত আঙুল দিয়ে ইশারা করতেন। এ সময় তিনি বৃদ্ধাঙ্গুলিকে মধ্যমার সাথে সংযুক্ত করতেন এবং বাঁ হাত বাঁ হাঁটুর ওপর থাকতো। (সহিহ মুসলিম: ১৩৩৬)

আব্দুল্লাহ ইবনে ওমর (রা.) থেকে বর্ণিত আল্লাহর রাসুল (সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম) নামাজ পড়ার সময় যখন বসতেন, তখন তার দুই হাত দুই হাঁটুর ওপর রাখতেন আর ডান হাতের বৃদ্ধাঙ্গুলির পার্শ্ববতী আঙুল উঠিয়ে ইশারা করতেন এবং বাঁ হাত বাঁ হাঁটুর উপর ছড়িয়ে রাখতেন। (সহিহ মুসলিম: ১৩৩৭)

অর্থ ও উচ্চারণসহ তাশাহহুদ

التَّحِيَّاتُ لِلَّهِ وَالصَّلَوَاتُ وَالطَّيِّبَاتُ ، السَّلَامُ عَلَيْكَ أَيُّهَا النَّبِيُّ وَرَحْمَةُ اللَّهِ وَبَرَكَاتُهُ ، السَّلَامُ عَلَيْنَا وَعَلَى عِبَادِ اللَّهِ الصَّالِحِينَ ، أَشْهَدُ أَنْ لَا إِلَهَ إِلَّا اللَّهُ وَأَشْهَدُ أَنَّ مُحَمَّدًا عَبْدُهُ وَرَسُولُهُ

উচ্চারণ: আত্তাহিয়্যাতু লিল্লাহি ওয়াস-সালাওয়াতু ওয়াত-ত্বায়্যিবাতু; আস-সালামু আলাইকা আইয়্যুহান নাবিয়্যু ওয়া রাহমাতুল্লাহি ওয়া বারাকাতুহ; আসসালামু আলাইনা ওয়া আলা ইবাদিল্লাহিস সালিহীন; আশহাদু আল লা ইলাহা ইল্লাল্লাহু ওয়া আশহাদু আন্না মুহাম্মাদান আবদুহু ওয়া রাসুলুহু।

অর্থ: সব মৌখিক ইবাদত আল্লাহর জন্য। হে নবি! আপনার প্রতি শান্তি বর্ষিত হোক এবং আল্লাহর অনুগ্রহ ও বরকত বর্ষিত হোক। শান্তি আমাদের ওপর এবং আল্লাহর নেক বান্দাদের ওপর বর্ষিত হোক। আমি সাক্ষ্য দিচ্ছি যে, আল্লাহ ব্যতীত আর কোনো মাবুদ বা উপাস্য নাই এবং আমি আরও সাক্ষ্য দিচ্ছি যে, নিশ্চয়ই মুহাম্মাদ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম আল্লাহর বান্দা ও রাসুল।
  • বিষয়:

নিউজটি আপডেট করেছেন: বাংলা নিউজ নেটওয়ার্ক ডেস্ক।

বাংলা নিউজ নেটওয়ার্ক ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
কমেন্ট বক্স
সর্বশেষ সংবাদ
ইসরায়েলে হামলা বন্ধের শর্ত দিল হিজবুল্লাহ

ইসরায়েলে হামলা বন্ধের শর্ত দিল হিজবুল্লাহ